Golden Bangladesh
Eminent People - আনোয়ার হোসেন (অভিনেতা)

Pictureআনোয়ার হোসেন (অভিনেতা)
Nameআনোয়ার হোসেন (অভিনেতা)
DistrictJamalpur
ThanaNot set
Address
Phone
Mobile
Email
Website
Eminent Typeচলচিত্র ও নাটক
Life Style

আনোয়ার হোসেন (অভিনেতা)



জন্ম

নভেম্বর, ১৯৩১
জামালপুর, ব্রিটিশ ভারত

মৃত্যু

সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৩ (৮১ বছর)
ঢাকা, বাংলাদেশ

সমাধি

মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থান

জাতীয়তা

বাংলাদেশী

বংশোদ্ভূত

বাঙালি

নাগরিকত্ব

বাংলাদেশী

পেশা

অভিনেতা
মঞ্চ অভিনেতা
টিভি অভিনেতা
বেতার অভিনেতা

কার্যকাল

১৯৫৮২০০৬

ধর্ম

মুসলিম

দম্পতি

নাসিমা আনোয়ার (????- বর্তমান)

সন্তান

(চার) ছেলে এবং (এক) মেয়ে

পুরস্কার

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

বাচসাস পুরষ্কার
পাকিস্তানের নিগার পুরষ্কার
মেরিল-প্রথম আলো পূরস্কার

একই নামের অন্যান্য ব্যক্তিবর্গের জন্য দেখুন আনোয়ার হোসেন

আনোয়ার হোসেন (জন্ম:১৯৩১; মৃত্যু:২০১৩) বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ভূবনে নবাব সিরাজউদ্দৌলা মুকুটহীন সম্রাট নামে খ্যাত[] এই অভিনেতা ১৯৫৮ সালে চিত্রায়িত তোমার আমার চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে অভিনয় জীবনে আসেন। ঢাকার চলচ্চিত্রের এই প্রাণ-পুরুষ ৫২ বছরের অভিনয় জীবনে পাঁচ শতাধিক চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন[]

জন্ম শিক্ষা

আনোয়ার হোসেনের জন্ম ১৯৩১ সালের নভেম্বর জামালপুর জেলার সরুলিয়া গ্রামে[] তার পিতার নাম নজির হোসেন মায়ের নাম সাঈদা খাতুন। নজির-সাঈদা দম্পতির তৃতীয় সন্তান আনোয়ার হোসেন। ১৯৫১ সালে তিনি জামালপুর স্কুল থেকে ম্যাট্রিক পাস করেন। পরবর্তীতে ভর্তি হন ময়মনসিংহ আনন্দমোহন কলেজে। স্কুল জীবনে প্রথম অভিনয় করেন আসকার ইবনে সাইকের পদক্ষেপ নাটকে ১৯৫৭ সালে তিনি ঢাকায় চলে আসেন এবং নাসিমা খানমকে বিয়ে করেন[]

অভিনয় জীবনে প্রবেশ

পরিচালক মহিউদ্দিনের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সুবাদে প্রথম পরিচয়েই আনোয়ার হোসেন তার অভিনয় দক্ষতা প্রমাণ করে তোমার আমার ছবিতে অভিনয়ের সুযোগ পান। বিডিনিউজ ২৪ ডট কম দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের অভিনয় জীবনের শুরু কথা তিনি জানান।

বালকবেলায় স্কুলের নাটকে অভিনয় করতে গিয়েই অভিনয়ের প্রতি আমার আসক্তি। এরপর তখনকার রূপালী জগতের তারকা ছবি বিশ্বাস, কাননদেবী এদের বিভিন্ন ছবি দেখতে দেখতেই রূপালী জগতে আসার ইচ্ছাটি প্রবল থেকে প্রবলতর হয়ে ওঠে। পঞ্চাশ দশকের শেষের দিকে সিদ্ধান্ত নিলাম অভিনয় করবো সারাজীবন। সুতরাং অন্য কোন জীবিকার সন্ধান না করে সরাসরি চলে গেলাম পরিচালক মহিউদ্দিন সাহেবের কাছে। তিনি তখনমাটির পাহাড়নামের একটি ছবির কাজ করছেন। তাকে ধরলাম আমাকে নেওয়ার জন্য। তিনি জানালেন, ছবিতে অভিনয় শিল্পী নির্বাচনের কাজ শেষ। ফলে আমাকে নেওয়া যাচ্ছে না আপাতত। ৫৮ সালে শুরু করলেনতোমার আমারছবিটির কাজ। এখানে আমাকে নির্বাচন করা হলো খল-নায়কের চরিত্রে। আমার রূপালী পর্দায় অভিষেক হলোবীরেনহিসেবে। এই ছবিতে আমার সহশিল্পী ছিলেন কাফী খান আর আমিনুল ইসলাম। এরা এখনও বেঁচে আছেন। আমাদের সমসাময়িকদের মধ্যে সম্ভবত একমাত্র আমরাই এখনো বেঁচে আছি।২০১০ সালে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে আজীবন সম্মাননা পান তিনি।

তার জনপ্রিয় চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে রয়েছে ইত্যাদি।

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র

আনোয়ার হোসেন অভিনীত নবাব সিরাজউদ্দোল্লাহ চলচ্চিত্র

  • তোমার আমার - পরিচালক: মহিউদ্দিন - (১৯৬১)
  • সূর্যস্নান - পরিচালক: সালাউদ্দিন - (১৯৬২)
  • কাঁচের দেয়াল - পরিচালক: জহির রায়হান - (১৯৬৩)
  • বন্ধন - পরিচালক: কাজী জহির - (১৯৬৪)
  • নবাব সিরাজউদ্দৌলা - পরিচালক: খান আতাউর রহমান - (১৯৬৭)
  • লাঠিয়াল - পরিচালক: নারায়ণ ঘোষ মিতা - (১৯৭৫)
  • পালঙ্ক - পরিচালক: রাজেন তরফদার - (১৯৭৬)
  • রূপালী সৈকতে - পরিচালক: আলমগীর কবির - (১৯৭৭)
  • নয়নমনি - পরিচালক: আমজাদ হোসেন - (১৯৭৭)
  • গোলাপী এখন ট্রেনে - পরিচালক: আমজাদ হোসেন - (১৯৭৮)
  • সূর্য সংগ্রাম - পরিচালক: আবদুস সামাদ - (১৯৭৯)
  • বড় ভাল লোক ছিল - পরিচালক: মহিউদ্দিন - (১৯৮২)
  • ভাত দে - পরিচালক: আমজাদ হোসেন - (১৯৮৪)
  • শহীদ তিতুমীর - পরিচালক:
  • ঈশা খাঁ - পরিচালক:
  • অনন্ত ভালবাসা - পরিচালক: সোহানুর রহমান সোহান - (১৯৯৯)

সম্মাননা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

আনোয়ার হোসেন ১৯৭৫ সালে প্রথম প্রবর্তন প্রদানকৃত দেশের একমাত্র রাষ্ট্রীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিজয়ী অভিনেতা। নারায়ণ ঘোষ মিতা পরিচালিত লাঠিয়াল চলচ্চিত্রে তাঁর সুঅভিনয়ের সীকৃতি স্বরূপ শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার লাভ করেন। আমজাদ হোসেনের গোলাপী এখন ট্রেনেতে সহ-অভিনেতা হিসেবে পুরস্কার পান ১৯৭৮ সালে। ২০১০ সালে প্রদানকৃত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার- আজীবন সম্মাননায় ভুষিত হন তিনি।

  • শ্রেষ্ঠ অভিনেতা - চলচ্চিত্র: লাঠিয়াল - (১৯৭৫)
  • সহ অভিনেতা - চলচ্চিত্র: গোলাপী এখন ট্রেনে - (১৯৭৮)
  • আজীবন সম্মাননা - (২০১০)

অন্যান্য পুরস্কার

  1. পাকিস্তানের নিগার পুরস্কার - (১৯৬৭)
Rationale
UploaderRaihan Ahamed