Golden Bangladesh
Eminent People - আবদুশ শাকুর

Pictureআবদুশ শাকুর
Nameআবদুশ শাকুর
DistrictNoakhali
ThanaNot set
Address
Phone
Mobile
Email
Website
Eminent Typeসাহিত্য
Life Style

আবদুশ শাকুর
কথাসাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, রচনাসাহিত্যিক, রবীন্দ্র-গবেষক, সংগীতজ্ঞ
জন্মঃ ২৫ ফেব্রুয়ারী ১৯৪১  মৃত্যুঃ ১৫ জানুয়ারী ২০১২
www.abdush-shakoor.com

আবদুশ শাকুর একজন প্রতিষ্ঠিত কথাসাহিত্যিক, প্রাবন্ধিক, রচনাসাহিত্যিক, রবীন্দ্র-গবেষক, সংগীতজ্ঞ গোলাপ-বিশেষজ্ঞ। জন্ম ২৫শে ফেব্রুয়ারি ১৯৪১ খ্রিস্টাব্দেনোয়াখালী জেলার সুধারাম থানার রামেশ্বরপুর গ্রামে। বাবা মকবুল আহমাদ মা ফায়জুন্নিসা। দুই ভাই-এক বোনের মধ্যে তিনি সর্বকনিষ্ঠ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্সসহ এম. এবং হল্যান্ডের আই.এস.এস থেকে উন্নয়ন অর্থনীতিতে এম.এস। প্রথমে বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজী সাহিত্যের অধ্যাপনা, পরে পাকিস্তানের কেন্দ্রীয় সিভিল সার্ভিসে যোগদান এবং বাংলাদেশ সরকারের সচিব হিসাবে অবসর গ্রহণ। পড়াশোনা করেন বিবিধ বিষয়ে এবং নানান ভাষায়। লেখেন গল্প, উপন্যাস, নাটক প্রবন্ধ। তবে রচনাসাহিত্যে তাঁর অবস্থান অবিসংবাদিতভাবেই শীর্ষস্থানীয়।

সাহিত্যকর্ম
দেশে এবং বিদেশে প্রাপ্ত দুটি গুরুত্বপূর্ণ পুরস্কার ছোটগল্পের ক্ষেত্রে তাঁর বিশেষ স্থান নির্দেশ করে। তাঁর পাঁচশতাধিক পৃষ্ঠারগল্পসমগ্রগ্রন্থটি কীর্তি হিসেবে বাংলা কথাসাহিত্যের ক্ষেত্রে দীর্ঘস্থায়ী হবার উপাদানে সমৃদ্ধ। . তাঁর পাঁচশতাধিক পৃষ্ঠাররম্যসমগ্রব্যাখ্যা করে কেন রম্যরচনার ক্ষেত্রে তিনি দেশের অগ্রগণ্য লেখক হিসেবে বরিত। . তাঁর গোলাপ-বিষয়ক গবেষণামূলক রচনাসমূহ বিশেষতগোলাপসংগ্রহগ্রন্থটি স্বক্ষেত্রে বাংলাভাষায় একক। শুধু পুষ্পরানী সম্পর্কেই নয়, পুস্তকটিতে রয়েছে মৌসুমী, বর্ষজীবী, দ্বিবর্ষজীবী, চিরজীবী পুষ্পবিষয়ক বিবিধ আলোচনাসহ বাংলাদেশের জাতীয় ফুল জাতীয় উদ্ভিদ উদ্যানের উপর সারগর্ভ পর্যালোচনাও। . গবেষণামূলক সঙ্গীতলেখক হিসেবে দেশের সঙ্গীত সাহিত্যিক সমাজে তিনি অগ্রগণ্য। শুদ্ধসঙ্গীতের স্বর, সুর, কথা, হিন্দুস্তানীসঙ্গীত বনাম কর্ণাটকসঙ্গীত, ধ্বনিমুদ্রণ প্রযুক্তি, ধ্বনিসংস্কৃতি বনাম লিপিসংস্কৃতি ইত্যাদি বিষয়ে গভীরচারী আলোচনার জন্য তাঁরসংগীত সংগীত’, রাগসঙ্গীতচর্চার সোনালী শতক সম্পর্কিতমহান শ্রোতাএবং সার্ধশত বর্ষের দেশাত্মবোধক সঙ্গীত পর্যালোচনা গ্রন্থবাঙালির মুক্তির গানবিশেষজ্ঞমহলে সমাদৃত। . তাঁরমহামহিম রবীন্দ্রনাথ’, ‘পরম্পরাহীন রবীন্দ্রনাথএবংরবীন্দ্রনাথকে যতটুকু জানি’-নামক রবীন্দ্র-গবেষণামূলক গ্রন্থগুলি বোদ্ধা মহলে কবিগুরুর শেষহীন গুরুত্ব অনুধাবনে বিশেষ সহায়ক বলে বিবেচিত। . তাঁর উপন্যাসগুলি ভাষা উপজীব্যের দিক দিয়ে অভিনব বলেই বেশি গুরুত্বপূর্ণ। উদাহরণ : ‘ক্রাইসিস’, ‘সংলাপ’, ‘উত্তর-দক্ষিণ সংলাপ `ভালোবাসা' . মুখের ভাষার মতো তাঁর গদ্যও বুদ্ধিদীপ্ত, ক্ষিপ্র, কাব্যময়, রঙিন ক্ষুরধার। গদ্যশরীর যতখানি নিখাদ আর শাণিত হতে পারে, তাঁর ভাষা প্রায় তারই উপমা। বাংলা সাহিত্যের খ্যাতিমান অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ-এর ভাষায়, ‘আজ আমাদের চারপাশে অযত্ন আর অবহেলায় লেখা শিথিল গদ্যভাষার যেঅলীক কুনাট্যরঙ্গমাথা উঁচিয়ে উঠেছে। আবদুশ শাকুরের গদ্য চিরায়ত গদ্যের পক্ষ থেকে তার 

 
Rationale
UploaderRaihan Ahamed